নওগাঁ জেলা সদর হাসপাতাল থেকে ৫ মাস বয়সের বাচ্চা চুরি

অন্তর আহম্মেদ নওগাঁ জেলা প্রতিনিধিঃ নওগাঁ জেলা সদর হাসপাতাল থেকে ৫ মাস বয়সের মুসা নামের একটি শিশু চুরির ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় নওগাঁ সদর হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে আতংক বিরাজ করছে। গতকাল শনিবার ৩টায় হাসপাতালে এই ঘটনা ঘটেছে।শিশুটিকে উদ্ধারে পুলিশের একাধিক দল কাজ করছে। চুরি যাওয়া শিশু মুসা নওগাঁ সদর উপজেলার মঙ্গলপুর গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে ও তার মায়ের নাম বৃষ্টি এবং মুসা তাদের এক মাত্র সন্তান বলে জানা গেছে।শিশুর অভিভাবক ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, গত ২ অক্টোবর হাসপাতালের নতুন ভবনের শিশু ওয়ার্ডে ভর্তি হয়ে শিশু মুসাকে নিয়ে হাসপাতালে থাকেন শিশুটির মা ও দাদি। এ সময় একটি অপরিচিত নারী তাদের সাথে সখ্যতা গড়ে তোলেন।গতকাল শনিবার ৩টায় দিকে শিশুটির দাদি হাসপাতালের বাহিরে ওষুধ নিতে গেলে শিশুটির মা ওই অপরিচিত নারীর কাছে মুসাকে রেখে বাথ রুমে যান। তিনি বাথ রুম থেকে ফিরে এসে ওই নারী ও শিশু কাউকেই দেখতে পান না।এ সময় শিশুটির দাদি ফিরে আসলে কারও কাছে সন্তান না থাকায় কান্না ও আহাজারি শুরু করেন। এতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিষয়টি জানতে পারলে সিসিটিভির ফুটেজ দেখে শিশু চুরির বিষয়টি নিশ্চিত হোন। এ বিষয়ে নওগাঁ সদর থানায় একটি ডায়রি করা হয়েছে।হাপতালের ভারপ্রাপ্ত তত্বাবধায়ক ডা. মুক্তার হোসেন জানান, সিসিটিভির ফুটেজে দেখা যায় একটি বোরখা পড়া নারী শিশুটিকে হাসপাতাল থেকে নিয়ে অটো চার্জার যোগে হাসপাতাল থেকে বের হয়ে যায়।এ বিষয়টি থানায় জানানো হয়েছে শিশুটির সন্ধানে চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। নওগাঁর সদর মডেল থানার ওসি সোহওয়ার্দি হোসেন জানান, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ থানায় খবর দিলে দ্রুত শিশুটিকে উদ্ধারে পুলিশের একাধিক দল কাজ শুরু করেছে।